25 Nov 2017 - 12:36:51 am

গাইবান্ধার কবি কুমকুম খাতুনের কবিতা ‘’বজ্রাঘাত”

Published on মঙ্গলবার, জুলাই ২৫, ২০১৭ at ১০:১৭ অপরাহ্ণ
Print Friendly, PDF & Email

বজ্রাঘাত

-কুমকুম খাতুন

অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে ওই আকাশ পানে,

গগন বিদারী চিৎকার মন উচাটনে।

হঠাৎ আকাশ থেকে বজ্র ধ্বনি হলো,

অপলক দৃষ্টিতে দেখি মেঘগুলো এলোমেলো।

গাইবান্ধার কবি কুমকুম খাতুনের কবিতা ‘’বজ্রাঘাত”হিংস্রের ন্যায় ছুটছে যেন দস্যি দমকা হাওয়া,

এমন সময় ঘরের বাহিরে যায় কি আর যাওয়া?

তবু তনু লুটিয়ে শয্যায় দেখছি পাগলা হাওয়া,

স্নিগ্ধ শীতল এমন সময় যায়না সদা পাওয়া।

খোদার কীযে মহিমা? বিজলি উঠল চমকে,

শত সহস্রাধিক প্রাণ ক্ষণিকেই গেলো থমকে।

মেঘগুলো অশ্রু হয়ে ঝরলো ধরার বুকে,

প্রাণগুলো নিস্তব্ধ হলো দারুণ মহা সুখে।

মানুষ, জীব-জন্তু হারালো প্রাণ বিজলি চমক দিলে,

দমকা হাওয়ায় উড়লো বাড়ী নলডাঙ্গারও ঝিলে।

জেলে ভাই ফেলেছিল জাল ওই একই বিলে,

খোদা এ কোন মহিমা? লন্ডভন্ড করে দিলে।

জেলে ভাইও বজ্রাঘাতে ঘুমে দিলো পাড়ি,

দেখতে দেখতে হলো জড়ো শত লাশের সারি।

এমন সময় রেগে বিজলি দিল একটা ঝাড়ি,

ভয়ে তনুর বুক পাজরের সুখটা গেলো ছাড়ি।

Print Friendly, PDF & Email