25 Nov 2017 - 03:14:51 pm

২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবসকে সামনে রেখে বিটিসি’র ঈদ পুনর্মিলনী, ভ্রমন ও আড্ডা অনুষ্ঠিত

Published on শনিবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭ at ৬:৫২ অপরাহ্ণ
Print Friendly, PDF & Email

প্রেস রিলিজঃ 'মাতৃভূমি তথা নিজ দেশে ভ্রমণ করুন ; দেশকে জানুন এবং পর্যটন হোক টেকসই উন্নয়নের হাতিয়ার' এ শ্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে বগুড়ায় পর্যটন মোটেল গত ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শুত্রবার বাংলাদেশের প্রথম পর্যটন ভিত্তিক নাগরিক সংগঠন বগুড়া ট্যুরিস্ট ক্লাব’র ঈদ পুনর্মিলনী ভ্রমন আড্ডা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বগুড়া ট্যুরিস্ট ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ. কে. এম ইজহারুল হক জিহাদ’র সভাপতিত্ব এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিস এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ মাহফুজ রহমান’র সার্বিক পরিচালনায় আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবসকে সামনে রেখে বিটিসি’র ঈদ পুনর্মিলনী, ভ্রমন ও আড্ডা অনুষ্ঠিতছিলেন ৪২ বগুড়া-৭ (শাজাহানপুর-গাবতলী) নির্বাচনী আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য জনাব অ্যাড. আলতাব হোসেন। তিনি বলেন, সকলের জন্য পর্যটন; সার্বজনীন পর্যটনের অভিগম্যতা হয়ে উঠুক। পর্যটন শিল্পের সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের পর্যটন আকর্ষণ সমূহকে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের মাঝে তুলে ধরার প্রয়াসে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে। পর্যটনের মাধ্যমে মানুষে মানুষে সম্প্রীতির মেলবন্ধন রচনা এবং সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বিকশিত হয়। তাই দেশের পর্যটন উন্নয়ন ও বিকাশে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশের সকলকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করে যেতে হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও পর্যটন কেন্দ্রের সাথে সেতুবন্ধন গড়ে তোলা। পর্যটনের সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে পর্যটন গ্রহনযোগ্যতা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়া সংগঠনের মূল্ লক্ষ্য। উক্ত ভ্রমন আড্ডা থেকে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস সাফল্ করতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও  শোভাযাত্রা বের করার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদ, সদস্য মোঃ সবুজ হোসেন, মোঃ শাহীন, মোঃ ফরহাদ হোসেন, মোঃ ইউসুফ আলী, মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন, সানোয়ার হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, শাজাহানপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক জিয়াউল হক জুয়েল সহ প্রায় অর্ধশতাধিক পর্যটন প্রেমী উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email