ডোমারে ওয়াক্তিয়া মসজিদ দখলের চেষ্টা, এলাকাবাসীর ক্ষোভ!
৯ মার্চ '১৮
0 Shares

ডোমারে ওয়াক্তিয়া মসজিদ দখলের চেষ্টা, এলাকাবাসীর ক্ষোভ!

তোজাম্মেল হোসেন মঞ্জু, চিলাহাটি, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি : নীলফামারী ডোমারে মসজিদ দখলের চেষ্টা, এ নিয়ে এলাকাবাসীর মনে নানা ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। ঘটনাটি ডোমার পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ড চিকনমাটি রেলষ্টেশন পূর্বপাড়া গ্রামে।

ডোমারে ওয়াক্তিয়া মসজিদ দখলের চেষ্টা, এলাকাবাসীর ক্ষোভ!সরেজমিনে যানাযায়, উক্ত গ্রামের মৃত আলহাজ্ব তমিজ উদ্দিন নিজ পরিবার ও এলাকাবাসীর সুবিধার জন্য দীর্ঘ ২০ বছর পূর্বে তার বাড়ীর সামনে নামাজ আদায় ও আরবী শিক্ষার জন্য একটি ওয়াক্তিয়া মসজিদ ঘড় নির্মান করে। ২০০১ সালে তিনি মৃত্যু বরণ করেন, সেই মসজিদ উন্নয়ন কল্পে ২ বার সরকারী অনুদান প্রাপ্ত হয়। এছাড়াও গত ৪ বছর যাবত সেখানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম চালু রয়েছে এতে প্রায় শতাধীক শিক্ষার্থী আরবী শিক্ষা গ্রহন করে। গত বন্যায় মসজিদটির দেয়াল কিছুটা ভেঙ্গে যাওয়ায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মৃত আলহাজ্ব তমিজ উদ্দিনের ছেলে তালেবুল ইসলাম ও তার ভাই আবু তাহেরসহ ছেলে রায়হান, রুবেল মিলে খড়ি ও গরু রেখে মসজিদ ঘড়টি নোংরা করে আসছে এবং মসজিদটি দখলের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার ছোট ভাই তাইজুল ও বুলবুল বলেন, আমার বাবা বেঁচে থাকা কালীন ওই মসজিদ ঘড় টি নির্মান করে, আমাদের পরিবারে লোকজন সহ এলাকার মানুষ সেখানে নামাজ পড়ে এবং সকালে শিশুরা আরবী শিক্ষা গ্রহন করে। আজ আমার ভাই তালেবুল ও আবু তাহের মিলে দখল করে ভেঙ্গে ফেলার পায়তারায় মেতে উঠেছে, তার বাবার রেখে যাওয়া মসজিদটি চালু রাখার জোর দাবী জানান।

এলাকার সাবেক কাউন্সিলর আশিকুর রহমান সাজু জনান, আমি কাউন্সিলর থাকা কালীন সেখানে ২ বার টিআর প্রকল্পের সরকারী বরাদ্ধ পেয়েছিলাম, সেটা দিয়ে মসজিদটির বারান্দা ও অন্যান্য কাজ নিজ হাতে সম্পন্ন করি, সেটি আজ গোয়াল ঘড়ে পরিনত করেছে তারা। মসজিদটি চালু থাকলে এলাকার শিশুরা আরবী শিক্ষা পাবে পাশাপাশী মসজিদটি সুরক্ষিত থাকবে। এরই ধারাবাহিকতায় ৬ মার্চ মঙ্গলবার গভীর রাতে তালেবুল তার জামাই মশিয়ার, ভাই আবু তাহেরসহ রায়হান, রুবেল, রাতুল, অজ্ঞাত নামা লোকজন নিয়ে মসজিদটি দখলের চেষ্টা চালায়। এ সময় পুলিশকে সংবাদ দিলে ডোমার থানা এসআই অনন্ত কুমার রায় ও সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। মোমিনুল ইসলাম লিথুর স্ত্রী শাহানাজ বেগম বলেন, দখলের চেষ্টায় ব্যাথ্য হয়ে আমাদের নামে মিথ্যা মামলা করার পরিকল্পনায় তালেবুল নাটক সাজিয়ে তার স্ত্রী আফেলা বেগম কে হাসপাতালে ভর্তি করে। মসজিদটি রক্ষার্থে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন আলহাজ তমিজ উদ্দিনের পরিবার।
অপর দিকে আজ তালেবুল ও আবু তাহের  অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন ,একটি মহল আমারদের ভাইদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে দেয়ার চেষ্টা করছে।

Print Friendly, PDF & Email

About dimlanews

Related Posts

Leave a Reply

*

সম্পাদকের বক্তব্যঃ

তিস্তা নিউজ ২৪ ডটকম ভিজিট করুন এবং বিজ্ঞাপন দিন।