Home নীলফামারী ডিমলায় আটক ধর্ষককে থানায় না দিয়ে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিলো প্রভাবশালীরা

ডিমলায় আটক ধর্ষককে থানায় না দিয়ে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিলো প্রভাবশালীরা

0
110
প্রতিকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার: নীলফামারীর ডিমলায় ধর্ষণের অভিযোগে আটক যুবককে থানায় না দিয়ে ৭০ হাজার টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দিয়েছে প্রভাবশালীরা। ওই যুবকের নাম শফিকুল ইসলাম (২২)। উপজেলার কাকড়া গ্রামে তার বাড়ি। স্থানিয় কয়েকজন  দাপুটে ব্যক্তির কারণে ধর্ষিতার পরিবার থানায় মামলা করতে পারেনি। এমনই এক অভিযোগ পাওয়া গেছে এলাকাবাসীর কাছে।

প্রতিকী ছবি

ঘটনাটি ঘটেছে, আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) ডিমলা উপজেলার নাউতারা ইউনিয়নের সাতজান গ্রামে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, ডিমলা উপজেলার সাতজান গ্রামের (৮ নম্বর ওয়ার্ড) এক অসহায় দিনমুজুরের নাবালিকা মেয়ের সাথে একই ইউনিয়নের কাকড়া গ্রামের এক ধনাঢ্য পরিবারের কলেজ পড়ুয়া যুবক শফিকুল ইসলাম দীর্ঘ দিন থেকে মোবাইল ফোনে প্রেম-ভালবাসার নামে প্রতারণা চালিয়ে আসছিলো। এমতাবস্থায় গত সোমবার (২০ জানুয়ারি) রাতে শফিকুল ইসলাম মেয়েটির বাড়িতে আসে এবং বিয়ের মিথ্যে প্রলোভন দিয়ে ধর্ষন করে। এ সময় প্রতিবেশী লোকজন ঘটনা টের পেয়ে যুবকটিকে আটক করে। আটকের পরে স্থানিয় কয়েকজন দাপুটে ব্যক্তি ঘটনার আপোষ-মিমাংসার নামে ধর্ষককে অজ্ঞাত স্থানে লুকিয়ে রেখে তার পরিবারকে ১ লাখ টাকার প্রস্তাব দেন। পরবর্তীতে আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে নাউতারা ইউনিয়নের এক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে আপোষ-মিমাংসার বৈঠক বসে। এ বৈঠকে স্থানিয়রা ধর্ষণের ঘটনায় আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহনের উদ্যোগ না নিয়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আপোষ-মিমাংসা করে আটক ধর্ষককে ছেড়ে দিয়েছে বলে জানাগেছে।
ঘটনার বিষয়ে নাউতারা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শফিকুল ইসলাম বলেন, শুনেছি টাকার বিনিময়ে ঘটনাটি আপোষ-মিমাংসা কার হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম (লেলিন) বলেন, ৭০ হাজার টাকায় ধর্ষণের ঘটনাটি আপোষ-মিমাংসার হয়েছে এটা শুনেছি। এলাকার সচেতন মানুষ এ ঘটনায় থানা পুলিশের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। (বিস্তারিত তখ্য নিয়ে পাঠকদের কাছে আসছি আমরা আগামী কালকে)।

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here