মিজানুর রহমান মিলন,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারীর সৈয়দপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় এক অটোরিক্শা চালক নিহত হয়েছে। একটি কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় সংঘটিত ওই দূর্ঘটনায় ব্যাটারীচালিত ইজিবাইক এবং অটোরিকশার শিশু ওমহিলাসহ ৯ যাত্রী আহত হয়েছেন। গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে সৈয়দপুর শহরের উপকন্ঠে নীলফামারী – সৈয়দপুর সড়কের ওয়াপদা নয়াবাজার নামক এলাকায় ওই দূর্ঘটনাটি ঘটে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, নীলফামারী থেকে ছেড়ে আসা সৈয়দপুর অভিমুখী একটি কাভার্ড ভ্যান নীলফামারী – সৈয়দপুর সড়কের উল্লিখিত স্থানে বিপরীত দিকে থেকে আসা একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশাকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশার ৯ যাত্রী আহত হন। দূর্ঘটনার খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মী ও থানা পুলিশ সদস‌্যরা আহতের দ্রুত উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করেন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত নীলফামারী সদরের কাছারীপাড়ার জামিলা রানী (৪৫), সৈয়দপুর ওয়াপদা গেটের নুর ইসলাম (৬০), সৈয়দপুর শহরের মিস্ত্রিপাড়ার আলাল হোসেন (৫০) ও বোতলাগাড়ীর ইউপির উত্তর সোনাখুলীর আতিয়ার রহমানকে (৪০) রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে রাত ৯ টার দিকে অটোরিকশার চালক আলাল হোসেন মারা যায়। নিহত আলাল সৈয়দপুর শহরের মিস্ত্রিপাড়ার এলাকার মৃত. আকিবের ছেলে বলে জানা যায়। অন্য আহতদের মধ্যে সৈয়দপুর শহরের কয়া মিস্ত্রিপাড়ার মো. আসাদুর রহমান (৪৫), ঢেলাপীরের নাসিম (৪০), কুন্দল পূর্বপাড়ার অপু (২২), উত্তর সোনাখুলীর শিশু পরম (২) এবং ওয়াপদা খরিফাপাড়ার আবুল কালাম আজাদ (৩৫) সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল হাসনাত খান জানান, দূর্ঘটনাকবলিত কাভার্ড ভ্যান, ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশাটি উদ্ধার করে পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে। তবে ঘটনার পর পরই কাভার্ড ভ্যানটির চালক পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

তিস্তা নিউজের নিউজ রুম থেকে সমস্ত বিভাগসহ বাংলাদেশের সর্বশেষ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আপনি যদি তিস্তানিউজ ২৪.কম এ প্রকাশের জন্য আমাদের ট্রেন্ডিং নিউজ প্রেরণ করতে চান তবে আসুন এখনই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনার নিউজটি আমাদের নিউজ রুম থেকে নিউজ ডেস্ক হিসাবে প্রকাশিত হবে। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদান্তে- আব্দুল লতিফ খান, সম্পাদক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here