• Home »
  • নীলফামারী »
  • সৈয়দপুরে স্বামীর নির্যাতনের শিকার স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী হাসপাতালে
সৈয়দপুরে স্বামীর নির্যাতনের শিকার স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী হাসপাতালে
১৩ জুলা '১৮
0 Shares

সৈয়দপুরে স্বামীর নির্যাতনের শিকার স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী হাসপাতালে

মিজানুর রহমান মিলন,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি: অফিসিয়ালী ঋণ নিতে রাজি না হওয়ায় পাষন্ড স্বামীর নির্যাতনের শিকার স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার নুপুরকে (৩২) আহত অবস্থায় সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পাষন্ড স্বামীর নাম মো. মজিবর রহমান (৪২)। সে শহরের চাঁদনগর এলাকার শমসের আলীর পুত্র।
সূত্র জানায়, শহরের বাঙ্গালীপুর নিজপাড়া এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা মৃত আব্দুল মতিনের কন্যা আমিনুল হক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সুরাইয়া আক্তার নুপুরের সাথে বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সহকারী তহশিলদার মজিবর রহমানের সাথে বিয়ে হয় গত ২০০৭ সালে। নির্যাতনের শিকার নুপুর জানান, বিয়ের পর থেকেই প্রায়ই স্বামী মজিবর রহমান তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। একজন সরকারি কর্মচারী হয়েও মজিবর মাদকাসক্ত। নেশা করার কারণে সে নিয়ম-মাফিক অফিসে যায় না। কখনও কখনও কয়েকদিন ধরে বাড়িতে আসে না। এর কারণ জানতে গেলেই শুরু হয় শারিরীক নির্যাতন। নেশার টাকা যোগাড় করতে গিয়ে অনেক ধার দেনা হয়ে যায় সংসারে। ব্যাংক ও বিভিন্ন এনজিও থেকে প্রায় ৮ লাখ টাকা ঋণ করে স্বামীর হাতে তুলে দেই।
তিনি আরও জানান, বার বার নিষেধ করা সত্বেও মাদক না ছাড়ায় এবং নির্যাতন অব্যাহত রাখায় ৩ সন্তান নিয়ে সে শ্বশুড় বাড়িতে না থেকে শহরের বাঙ্গালীপুর নিজপাড়ায় আলাদা বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছেন। এ অবস্থায় গত বুধবার ছুটি নিয়ে বাড়িতে অবস্থান করছিলাম। এসময় তার স্বামী মজিবর রহমান হঠাৎ তাকে অফিসিয়ালী ঋণ নেয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। এতে সম্মত না হওয়ায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে কিল ঘুষি মারা শুরু করে। এতে সুরাইয়া নির্যাতনের বিষয়ে পুলিশকে জানানোর কথা বললে মজিবর আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বৈদ্যুতিক তার দিয়ে গলা পেচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে এলাকাবাসী এবং স্কুলের শিক্ষকরা তাকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
সংবাদ পেয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বজলুর রশীদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন স্কুল শিক্ষিকা সুরাইয়াকে দেখতে যান এবং তার চিকিৎসার বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। এসময় তারা এ ব্যাপারে আইনগত পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শ দেন এবং সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা আরিফুল হক সোহেল বলেন, সুরাইয়ার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল। তবে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ব্যাপারে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহজাহান পাশা ঘটনাটি শুনেছেন জানিয়ে বলেন অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email

About dimlanews

Related Posts

Leave a Reply

*

সম্পাদকের বক্তব্যঃ

তিস্তা নিউজ ২৪ ডটকম ভিজিট করুন এবং বিজ্ঞাপন দিন।